আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ দেশজুড়ে আর্থিক মন্দা চলছে। শেয়ারবাজার, নিফটি এবং সেনসেক্স তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। বাজেটে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলিকে বাড়তি টাকা বরাদ্দ করতে হয়েছে। কারণ এনপিএ অ্যাকাউন্ট বেড়েছে। তার মধ্যেই এবার প্রতারণার শিকার হল রাষ্ট্রায়ত্ত এলাহাবাদ ব্যাঙ্ক। পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদির কাছে প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকা প্রতারিত হয়েছে। এবার ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক (আরবিআই)–এর কাছে ভূষণ পাওয়ার অ্যান্ড স্টিলের বিরুদ্ধে ১ হাজার ৭৭৫ কোটি টাকার আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ জানাল এলাহাবাদ ব্যাঙ্ক। 
আরবিআইয়ের কাছে এলাহাবাদ ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ফরেনসিক অডিট এবং সংস্থার চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সিবিআইয়ের দায়ের করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে দেখা গিয়েছে ভূষণ পাওয়ার অ্যান্ড স্টিল লিমিটেড ১৭৭৪.৮২ কোটি টাকা প্রতারণায় অভিযুক্ত। আর এতেই ফের দেশজুড়ে চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। 
এই প্রশ্নগুলি উঠছে কারণ, শুধু এলাহাবাদ ব্যাঙ্ক নয়, পিএনবি–ও জানিয়েছে এই সংস্থা ওই ব্যাঙ্কের সঙ্গে জালিয়াতি করেছে। যার পরিমাণ প্রায় দ্বিগুণ। পিএনবি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ওই সংস্থার কাছে তাঁদের প্রাপ্য টাকার পরিমাণ ৩,৮০৫.১৫ কোটি টাকা। সংস্থার জন্য পিএনবি বরাদ্দ করেছিল ৪,৩৯৯ কোটি টাকা। তার প্রায় ৮৫ শতাংশ অর্থই সংস্থা পাচার করে দিয়েছে বলে অভিযোগ।
সিবিআই সূত্রে খবর, ভূষণ পাওয়ার অ্যান্ড স্টিল নিজের সংস্থার পরিচালক ও কর্মীদের মাধ্যমে পিএনবি (আইএফবি নতুন দিল্লি ও আইএফবি চণ্ডীগড়), ওরিয়েন্টাল ব্যাঙ্ক অব কমার্স (কলকাতা), আইডিবিআই ব্যাঙ্ক (কলকাতা) এবং ইউকো ব্যাঙ্ক (আইএফবি কলকাতা)–র মাধ্যমে ২৩৪৮ কোটি টাকা পাচার করে দিয়েছে। পিএনবি’‌র দেওয়া ওই ঋণের টাকা সরিয়ে ফেলা হয়।। বর্তমানে এই মামলা জাতীয় কোম্পানি আইন ট্রাইব্যুনালের অধীনে রয়েছে। ব্যাঙ্ক অর্থের উদ্ধারে আশাবাদী বলেও জানানো হয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top