বিশ্বরূপ মুখোপাধ্যায়‌
গত শতকে উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরীর ‘‌ছেলেদের মহাভারত’‌ তথা মহাভারত প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে শিশু–‌কিশোর মহলে সাড়া জাগিয়েছিল। তার কয়েক বছর পরে পূর্ণচন্দ্র ভট্টাচার্য্যেরও ছেলেদের তথা ছোটদের মহাভারত প্রকাশিত হয়। এবং এই বইটিও জনপ্রিয় হয়। গত শতকের সাহিত্যিক পূর্ণচন্দ্র ভট্টাচার্য্য যিনি মূলত শিশু–‌সাহিত্যিক হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছিলেন, তিনি আজ প্রায়–‌বিস্মৃত। সম্প্রতি তাঁর বিখ্যাত কিছু রচনা ছেলেদের মহাভারত, মসুয়ার ইতিহাস, বিক্রমাদিত্য, প্রতাপাদিত্য ও ধ্রুব‌— একত্রে সঙ্কলন ও সম্পাদনা করে প্রকাশ করেছেন তাঁর প্রপৌত্রী তানিয়া চক্রবর্তী। প্রসঙ্গত, ময়মনসিংহ জেলার (‌‌অধুনা বাংলাদেশ)‌‌ মসুয়া গ্রামে উপেন্দ্রকিশোর ও পূর্ণচন্দ্র দু’‌জনেই জন্মগ্রহণ করেন। শিশুসাহিত্য গ্রন্থ ছাড়াও গায়ক পাখি, বাংলার পাখি, পক্ষিতত্ত্ব নিয়ে কাজ করেছিলেন পূর্ণচন্দ্র। চেয়েছিলেন বাংলার পাখিকে শিশু–‌কিশোররা ভাল করে চিনুক। আলোচ্য গ্রন্থে সঙ্কলিত ছেলেদের মহাভারত অতীব একটি সুখপাঠ্য রচনা। মহাকাব্য মহাভারতে যে নিরন্তন টানাপোড়েন তা পড়তে ভাল লাগে পূর্ণচন্দ্রের লেখনীর গুণে। মসুয়ার ইতিহাস নামই বলে দেয় এটি একটি ঐতিহাসিক রচনা। অধুনা বাংলাদেশে ময়মনসিংহ জেলার কিশোরগঞ্জ মহকুমার মসুয়া গ্রামের কাশ্যপ বংশীয় ব্রাহ্মণগণ ও মৌদ্গল্য গোত্রীয় কায়স্থগণের বংশপত্রিকা, বংশবিবরণ, প্রধান ব্যক্তিগণের জীবনী ও অন্যান্য বিষয় নিয়ে এই লেখা। আঞ্চলিক ইতিহাসের ক্ষেত্রে যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
বিক্রমাদিত্য ঐতিহাসিক গল্প এবং সুখপাঠ্য। ধ্রুব রচনাটিও তাই। প্রতাপাদিত্য রচনাটিও বাঙালির শৌর্য ও বীরত্বের প্রতীক। যা আজও ইতিহাসপ্রিয় বাঙালির মুখে মুখে ফেরে। পূর্ণচন্দ্রের লেখা নিয়ে বিভিন্ন পত্র‌পত্রিকায় রবীন্দ্রনাথ, হরপ্রসাদ শাস্ত্রী, উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী, রামানন্দ চট্টোপাধ্যায় প্রমুখের সপ্রশংস উল্লেখ রয়েছে। খুব ভাল কাজ। কালের গহ্বরে হারিয়ে যাওয়ার আগে এই ধরনের সঙ্কলন বাঙালি পাঠক সমাজের কাছে নিঃসন্দেহে বড় প্রাপ্তি। মুদ্রণ পারিপাট্যও উল্লেখ করার মতো। ■
মহাভারত ও অন্যান্য ‌•‌ পূর্ণচন্দ্র ভট্টাচার্য্য •‌ সংগ্রহ ও সম্পাদনা তানিয়া চক্রবর্তী •‌ আত্মজা •‌ ৫০০ টাকা

জনপ্রিয়

Back To Top