আজকাল বই–‌এর খবরাখবর অনেকটাই ফেসবুকের কবজায় চলে গেছে। কোনটা রিয়েল, আর কোনটা ভারচুয়াল বোঝার উপায় থাকে না। হয় বিভ্রান্তি। এই বইয়ের খবর ফেসবুক থেকে পাওয়া নয়। যে মানুষটিকে ঘিরে এই বই, তাঁর সৌভাগ্য যে তঁাকে দেখে যেতে হয়নি ফেসবুকের ঢক্কানিনাদের ‌যুগ‌। তিনি মনন এবং চিন্তনযুগের যশস্বী। তিনি অর্থনীতিবিদ, প্রাবন্ধিক, সম্পাদক অশোক সেন। 
বইপাড়া সূত্রে জানা গেছে, প্রকাশিত হতে চলেছে ‘‌নির্বাচিত বারোমাস’‌। প্রকাশক দে’‌জ পাবলিশিং। এই সঙ্কলন সম্পাদনা করছেন, সমাজবিজ্ঞানী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। 
‘‌‌বারোমাস’‌— উত্তাল সত্তরে পথচলা শুরু অশোক সেনের সম্পাদনায়। তারপর সম্পূর্ণ ভিন্নধারার বিশিষ্ট একটি সাহিত্যপত্রিকা হয়ে–ওঠা।‌ সমাজ–‌ইতিহাসের সঙ্গে সংস্কৃতির নানা ধারা–‌উপধারা মিশে হয়ে উঠল অনবদ্য। সাময়িক প্রসঙ্গ, বইয়ের আলোচনা তো ছিলই। নিয়মিত থেকেছে চিন্তাবিদদের নতুন নতুন ভাবনা, দর্শন। যাঁরা সহজে কলম ধরতে চাইতেন না, বারোমাসে, অশোক সেনের গণ্ডিতে তাঁরাও ছিলেন স্বমহিমায়। চিন্তাজগতে শিক্ষাঙ্গনে যাঁদের ভাবনা নতুন প্রজন্মকে দিশা দেখায়— এমন মানুষও কলম ধরেছেন এই পত্রিকার জন্য। যেমন গৌতম ভদ্র, দীপেশ চক্রবর্তী, পঞ্চানন চক্রবর্তী, সুশোভন সরকারেরা। 
মাসিক পত্রিকা হিসেবে বারোমাসের পথচলা শুরু ১৯৭৮–‌এ। তারপর ষাণ্মাসিক বাৎসরিক হয়েও ২০১৫ পর্যন্ত বাংলা সাহিত্যজগতে উজ্জ্বল। সম্পাদক অশোক সেনের প্রয়াণে বন্ধ হল পত্রিকার পথ চলা।
সমাজবিজ্ঞানী পার্থ চট্টোপাধ্যায় গোড়া থেকেই পত্রিকার সঙ্গে যুক্ত। পালন করেছেন সহযোগী সম্পাদকের দায়িত্ব। এবার তাঁরই সম্পাদনায় প্রকাশিত হতে চলেছে ‘‌নির্বাচিত বারোমাস’‌। ১৯৭৮–’‌৯৮ এই কুড়ি বছরের পত্রিকা থেকে রচনা নির্বাচন করে বেরোতে চলেছে প্রথম খণ্ড। থাকছে সমাজ–‌ইতিহাস বিষয়ক ৫৯টি প্রবন্ধ। সঙ্গে থাকবে সাময়িক প্রসঙ্গ, গ্রামগঞ্জ ও প্রেম–‌অপ্রেম শিরোনামের নির্বাচিত রচনা। রামকিঙ্কর, পরিতোষ সেন, সত্যজিৎ রায়, গণেশ পাইনের মতো মানুষেরাও ছিলেন পত্রিকার প্রচ্ছদ শিল্পী। সে–সব প্রচ্ছদ ও অঙ্গসজ্জার প্রতিলিপিও থাকবে এই খণ্ডে।
কোনও সন্দেহ নেই, এই সঙ্কলন অবশ্যই বাংলা বইয়ের প্রকাশনায় একটা গুরুত্বপূর্ণ সংযোজন হতে চলেছে। 
সঙ্গের ছবিটি রামকিঙ্করের আঁকা। বারোমাস পত্রিকার প্রথম সংখ্যার প্রচ্ছদ। ■
সংবাদ:‌ বিশ্বনাথ ভট্টাচার্য‌

জনপ্রিয়

Back To Top