আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ যোগীর রাজ্য উত্তরপ্রদেশেই দলিত ও সংখ্যালঘু হেনস্থার ঘটনা ঘটেছে সবচেয়ে বেশি। এমনটাই জানা যাচ্ছে ‌জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের নতুন রিপোর্ট থেকে। রিপোর্ট অনুযায়ী, বিগত তিন বছরে (‌‌২০১৬–২০১৯, মে)‌ জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের কাছে দলিত ও সংখ্যালঘুদের হেনস্থার ঘটনার মোট ২০০৮টি অভিযোগ জমা পড়ে, যার মধ্যে ৮৬৯টি অভিযোগ এসেছে যোগীর রাজ্য থেকে। গোটা দেশে যত দলিত ও সংখ্যালঘুদের হেনস্থার ঘটনা ঘটেছে, তার মধ্যে ৪৩ শতাংশ ঘটনা ঘটেছে উত্তরপ্রদেশে। 
শুধু তাই নয়, মানবাধিকার কমিশনের রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, গোটা দেশে সংখ্যালঘুদের তুলনায় দলিত হেনস্থার ঘটনা গত তিন বছরে ৩৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এই বছরেই এখনও পর্যন্ত দলিত হেনস্থার ৯৯টি অভিযোগ জমা পড়েছে মানবাধিকার কমিশনের কাছে। ৬৪ শতাংশ দলিত ও সংখ্যালঘু হেনস্থার ঘটনা ঘটেছে দেশের হিন্দিভাষী অঞ্চলগুলিতে (‌উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, বিহার, হরিয়ানা ও মধ্যপ্রদেশ)‌। তার সঙ্গে দিল্লি, গুজরাট ও উত্তরাখন্ড যোগ করলে হিসাবটা দাঁড়ায় ৭৫ শতাংশ।  
পাশাপাশি সারা দেশের বিচারে দক্ষিণ ভারতের ৫টি রাজ্য– ‌তামিলনাড়ু, কেরল, তেলঙ্গনা, কর্ণাটক ও অন্ধ্রপ্রদেশে দলিত ও সংখ্যালঘু হেনস্থার ঘটনা ঘটেছে ৯.‌৫ শতাংশ। পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িষা সহ উত্তর পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতে ৫.‌১৭ শতাংশ ঘটনা ঘটেছে। 
যদিও যোগীর সরকার জানাচ্ছে, এই তিন বছরে উত্তরপ্রদেশে দলিত ও সংখ্যালঘুদের হেনস্থা ঘটনা ৫৪ শতাংশ কমেছে। গত জুলাই মাসে সংসদ ভবনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে লিখিতভাবে এই রিপোর্টের কথা জানানো হয়েছে।  ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top