আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ লকডাউন না হলে হয়তো পড়েই থাকত গ্যারেজে। তার পর একদিন চালান করে দেওয়া হতো কোনও চ্যারিটি শপে। লকডাউনের সময় ঝাড়পোছ করতে গিয়েই বাড়ির মালিকের চোখে পড়ে ছোট্ট টিপটটি। হলুদ রংয়ের পটের গায়ে সুন্দর কারুকাজ। ইন্টারনেটে একটু পড়াশোনা করেন। তার পর নিয়ে যান নিলাম সংস্থার কাছে। গিয়ে চোখ কপালে। 
যে সে টিপট নয়। চীনদেশী। তাও আবার সেখানকার রাজার। বয়স ২০০ বছরেরও বেশি। দাম হতে পারে ১ লক্ষ পাউন্ড। ভারতীয় মুদ্রায় ৯৫ লক্ষ টাকা। ব্রিটেনের ডার্বিশায়ারে ৫১ বছরের এক ব্যক্তি নিজের বাড়ির গ্যারেজে খুঁজে পান সেটি। 
হানসন অকশনিয়ার্স–এর কাছে নিয়ে যান সেই টিপট। তারাই জানায়, দুনিয়ার যে কোনও প্রান্তে বিক্রি করতে ২০ থেকে ৪০ হাজার পাউন্ড দাম পাবেন তিনি। আর চীনদেশীয় কারও কাছে বিক্রি করলে এক লক্ষ পাউন্ড পর্যন্ত দাম পাবেন। চীন সম্রাট কিয়ানলংয়ের (‌১৭৩৫–৯৯)‌ আমলের এই টিপট। আসলে বিশেষ অনুষ্ঠানে গরম ওয়াইন ঢালার জন্য ব্যবহৃত হত।
নিলাম সংস্থার মালিক চার্লস হানসনের মতে, এই টিপট ব্যবহার করতেন হয়তো খোদ কিয়ানলং। যাঁকে চীনের ইতিহাসে অন্যতম সেরা সম্রাট বলা হয়। ঠিক একই রকম দেখতে আরও দু’‌টি টিপট রয়েছে। একটি তাইওয়ানের তাইপেইয়ের ন্যাশনাল প্যালেস মিউজিয়ামে। অন্যটি বেজিংয়ের প্যালেস মিউজিয়ামে। ওই দু’‌টিতে কিয়ানলংয়ের শাসনকালের চিহ্ন রয়েছে।
যিনি এই টিপট খুঁজে পেয়েছেন, তিনি জানালেন, তাঁর মা ঘরে ক্যাবিনেটে সাজিয়ে রাখতেন এই টিপট। বাবা–মা গত হওয়ার পর লফটে রাখা হয়। তার পর পুরনো জিনিসের সঙ্গে চালান করা হয় গ্যারেজে। তাঁর ঠাকুরদা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় পূর্ব এশিয়ায় নিযুক্ত ছিলেন। বার্মা স্টার  মেডেলও পেয়েছিলেন। তিনিই দেশে ফেরার সময় নিয়ে আসেন এই অমূল্য রতনটি। এবার লকডাউনে পুনরুদ্ধার।  
 

জনপ্রিয়

Back To Top