আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‘‌কেন আমার এমন নাম রাখলে, বাবা মা?‌’ অনেক শিশুকেই এই প্রশ্ন করতে দেখি আমরা।‌ এবার এই ধরণেরই একটি প্রশ্নের ভাগীদার কেরলের এক ৩৪ বছরের মহিলা। তারও দু’‌টি সন্তান হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এই বয়সে এসে এমন কী হল যে তাঁর নামটি নিয়ে এত চর্চা?‌ যদি কারওর নাম সেই ভাইরাসের নামে হয়, যা কিনা লক্ষ লক্ষ মানুষের মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে, তবে তাঁকে নিয়ে মশকরা তো শুরু হবেই।‌ ৩৪ বছরের এই মহিলার নাম ‘‌কোরোনা’‌। কোরোনা জানিয়েছেন, এই নাম তাঁর বাবা মা দেননি। ব্যাপটিজমের সময়ে চার্চের এক পাদ্রী তাঁর এই নামটি রেখেছিলেন। তিনি জানেন না, কোথা থেকে পাদ্রীর মাথায় এই নামটি এসেছিল। তবে তাঁর কাছে যে’‌টুকু তথ্য রয়েছে, দ্বিতীয় দশকে এক ক্যাথলিক ধর্মযাজকের ছিলেন, যাঁর নাম ছিল ‘‌কোরোনা’। যদিও তিনি জানালেন, তাঁর নাম যিনি রেখেছিলেন, তাঁর প্রতি কোনও রাগ তিনি পোষণ করেন না। কে জানত, এমন এক সময় আসবে যেখানে একটি শব্দই সারা বিশ্বের সমস্ত মানুষের আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়াবে?‌ কিন্তু চারদিকে তাঁকে নিয়ে মশকরা করতেও ছাড়ছেন না কেউ। এছাড়া একটি খবর অনুসরণ করলেই জানা যাবে, এই মহামারীর মধ্যে জন্ম নিয়েছে এমন অনেক শিশুর নামই ‘‌করোনা’ রাখা হয়েছে। এমনকী এক যমজের নাম দেওয়া হয়েছে, ‘‌করোনা’ ও ‘কোভিড‌’।‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top