আজকালের প্রতিবেদন: বাঙালির সপ্তশৃঙ্গ জয়। ঠাকুরপুকুরের সত্যরূপ সিদ্ধান্ত শুক্রবার রাতে জয় করলেন অ্যান্টার্কটিকা ভিনসন ম্যাসিফ (‌৪,৮৯২ মিটার)‌‌ শৃঙ্গ। এভারেস্ট–সহ সাত মহাদেশের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মাউন্ট কিলিমঞ্জারো‌, মাউন্ট এলবাস‌, মাউন্ট অ্যাকানকাগুয়া, মাউন্ট ডেনালি, মাউন্ট কসেসিয়াস্কো এবং ভিনসন ম্যাসিফ জয় করলেন তিনি। প্রথম ভারতীয় অসামরিক ব্যক্তি হিসেবে তাঁর এই সপ্তশৃঙ্গ জয়ে স্বভাবতই খুশি রাজ্যবাসী। ফেসবুকে তাঁর প্রোফাইলে একের পর এক শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন বার্তা ভরে উঠছে। খুশিতে উচ্ছ্বসিত বাবা ডাঃ শুভময় সিদ্ধান্ত এবং মা গায়ত্রী সিদ্ধান্তও।
শেষতম শৃঙ্গ হিসেবে ভিনসেন্ট ম্যাসিফ উচ্চতার দিক থেকে খুব বেশি না হলেও প্রাকৃতিক প্রতিকূলতার দিক থেকে কঠিনতম। দক্ষিণ মেরুর বরফে ঢাকা দুর্গম ১১৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে তবে পৌঁছনো যায় ভিনসন ম্যাসিফের পাদদেশে। সত্যরূপের বাবা জানালেন, অভিযানের প্রতিকূলতার সব কিছু না জানালেও ছেলে কোন পথ ধরে যাচ্ছে তা আলোচনা করত। যাত্রাপথে নিয়মিত যোগাযোগও ছিল পরিবারের সঙ্গে। যাওয়ার পথেই জানিয়েছিল ১১৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে হয়েছে স্লেজ গাড়িতে চেপে। তারপর মূল অভিযান। ৮০–৯০ কিলোমিটার গতিবেগে ঝোড়ো হাওয়া বইছে। তাপমাত্রা হিমাঙ্কের ৪০ ডিগ্রি নিচে!‌ মা গায়ত্রীদেবী জানালেন, রাতে হঠাৎ দেখি জিপিআরএস–এ দেখাচ্ছে ভিনসন ম্যাসিফের চেয়ে সামান্য বেশি উচ্চতায় ছেলের অবস্থান। তখনই বেশ বুঝতে পারলাম ছেলে সফল হয়েছে। কিন্তু সরাসরি কিছু না জেনে তো নিশ্চিত হওয়া যায় না!‌ অবশেষে শনিবার সকালে ছেলের সঙ্গে কথা হতেই পুরোপুরি নিশ্চিত হলাম। সত্যরূপ সুস্থ আছে। বাড়ি ফিরবে জানুয়ারির ২১ তারিখে। কেমন সত্যরূপের বেড়ে ওঠা?‌ তাঁর মা জানালেন, ছেলেবেলা থেকেই ডানপিটে। বহরমপুরে বেড়ে ওঠা খেলাধুলো করেই। তারপর সফটঅয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হয়ে বেঙ্গালুরু যাওয়া। সেখানকার মাউন্টেনিয়ারিং ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত হয়ে প্রতি সপ্তাহান্তে ট্রেকিংয়ে যেতে যেতেই শৃঙ্গ জয়ের ইচ্ছে দানা বাঁধে। তিনি জানালেন, অত্যন্ত খরচসাপেক্ষ ব্যাপার। এবারের অভিযানে যেতেও ঋণ নিতে হয়েছে। কিন্তু কোনও না কোনও ভাবে এটা ও করেই ফেলে। পাহাড়ে চড়ার প্রেরণা সত্যরূপ পেলেন কী করে?‌ গায়ত্রীদেবী জানালেন, ওর দাদা সব্যসাচী সিদ্ধান্ত বিজ্ঞানী। ইতালির একটি বিশ্বিদ্যালয়ের সঙ্গে যুক্ত। পাশাপাশি ‘‌বিগ ব্যাং’‌ নিয়ে গবেষণা করছে। সুযোগ পেলেই মেতে ওঠে পর্বতারোহণে। সত্যরূপের এই ইচ্ছে হয়তো তাঁকে দেখেই। সপ্তশৃঙ্গ জয়ের পর সত্যরূপের নজর এবার সাত মহাদেশের ৭ উচ্চতম আগ্নেয়গিরি জয় করা। শনিবার থেকেই সেই লক্ষ্যে এগোচ্ছেন তিনি। বাঙালি হিসেবে আরও দু জনের সপ্তশৃঙ্গ জয়ের কৃতিত্ব আছে। প্রথম জন ভারতের সত্যব্রত দাম। তবে তিনি নৌবাহিনীর। আর দ্বিতীয় জন বাংলাদেশের এক মেয়ে ওয়াসফিয়া নাজরিন।‌

 

 

আন্টার্কটিকার ভিনসন ম্যাসিফের চূড়ায় সত্যরূপ সিদ্ধান্ত। 

জনপ্রিয়
আজকাল ব্লগ

Back To Top