Duare Cha: বেঁচে থাকার লড়াই, ‘দুয়ারে চা’ নিয়ে ঘুরছেন রাজেন্দ্র, আর্তি একটু সাহায্যের

মনোজিৎ মালাকার: খাস কলকাতায় এবার ‘দুয়ারে চা’।

হ্যাঁ, ঠিকই শুনেছেন। রাজ্যের ‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচির আদলে দুয়ারে চা নিয়ে হাজির হচ্ছেন রাজেন্দ্র নায়েক। একটা ফোন আর তারপরই মুহূর্তের মধ্যে চা নিয়ে পৌঁছে যাচ্ছেন। কলকাতার এই গলি থেকে সেই গলি সাইকেল নিয়ে ছুটে চলেছেন তিনি। সকালে ঘুম ভাঙার পর হোক কিংবা কাজের ফাঁকে এনার্জি ড্রিঙ্ক, চা বাঙালির অবিচ্ছেদ্য অংশ। আর সেই চা-ই এখন ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন রাজেন্দ্র। তবে দাম বেশি তা নয়। মাটির ভাঁড়ে চা মিলবে মাত্র ৬ টাকায়।

 

রাজেন্দ্রর বাড়ি ওড়িশার নয়াগড়ে। দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। ভবানীপুরে বাবা সামান্য বেতনে কাজ করেন। বর্তমানে সেখানেই বাবার সঙ্গে থাকেন তিনি। লকডাউনের জেরে সবকিছু বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। পেট চালানোই কার্যত মুশকিল হয়ে পড়েছিল। অগত্যা এক দোকানে কাজ করছিলেন। কিন্তু পরে সেই কাজও চলে যাওয়ায় কী করবেন বুঝে উঠতে পারছিলেন না। ঠিক তখনই মাথায় এল ‘দুয়ারে চা’-এর। তারপর থেকেই শুরু যাত্রা। এক্সাইড মোড়, ভবানীপুর আবার কখনও শিয়ালদহ-এলাকায় এলাকায় গিয়ে চা বিক্রি করেন তিনি। অপেক্ষা শুধু একটা ফোনের। তড়িঘড়ি ছুটে যান চা পৌঁছে দিতে‌।

আরও পড়ুন: ‘UPA কী? কোনও অস্তিত্বই নেই’, শরদ পাওয়ারের সঙ্গে বৈঠক শেষে কংগ্রেসকে খোঁচা মমতার

aajkaal.in-কে রাজেন্দ্র জানান, ‘লকডাউনের পরপরই এই কাজ শুরু করি। বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে গিয়ে চা দিই। কখনও কখনও পিজি হাসপাতালে গিয়ে রোগীদের পরিবারের সদস্যদের চা খাইয়ে আসি। তবে একটা দোকান হলে খুব ভাল হয়। আমার ৬৩ নম্বর ওয়ার্ড। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাহায্য কামনা করছি।’

আকর্ষণীয় খবর