আজকাল ওয়েবডেস্ক: মোহন বাগান দিবসে অভাবনীয় সম্মানে ভূষিত করা হল কলকাতার প্রাচীন এই ফুটবল ক্লাবকে। বুধবার নিউ ইয়র্কের টাইমস্‌ স্কোয়্যারের বিলবোর্ডে ভেসে উঠল ক্লাবের নাম, প্রতীক এবং পতাকার রং, সবুজ–মেরুন। টাইমস্‌ স্কোয়্যারে আমেরিকার স্টক এক্সচেঞ্জ ন্যাসড্যাকের ওই বিলবোর্ডে শুধু ইংরেজিতে নয়, নিউ ইয়র্কের বিলবোর্ডে বাংলাতেও লেখা হয়েছে মোহন বাগানের নাম। যা নিঃসন্দেহে শুধু মোহন বাগান ক্লাব কর্তৃপক্ষ, ফুটবলার, কর্মী এবং সমর্থকদের জন্যই নয়, গর্বের কারণ সারা ভারতবাসীদের জন্যও। ক্লাবের টুইটার অ্যাকাউন্টে সেই ছবি পোস্ট করে লেখা হয়েছে, ‘‌ন্যাসড্যাকের এই ছবিই প্রমাণ মোহন বাগান আলাদা কোনও লিগের অংশ। মেরিনার্সের জন্য খুব বড় দিন। শুভ মোহন বাগান দিবস মেরিনার্স’‌। 
১৮৮৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হলেও ২০০১ সাল থেকে প্রতি ২৯ জুলাই মোহন বাগান দিবস পালন করা হয় ক্লাবের তরফে।

কারণ, ১৯১১ সালে এই দিনই আইএফএ শিল্ড ফাইনালে ইংল্যান্ডের তৎকালীন ইস্ট ইয়র্কশায়ার রেজিমেন্টকে হারিয়ে কাপ জিতেছিল মোহন বাগান। আগে থেকে স্বাধীনতা সংগ্রামে যুঝতে থাকা ভারতবাসীর মনে, ব্রিটিশ খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে ১১জন ভারতীয় খেলোয়াড়দের সেই জয়, ব্রিটিশদের পরাজিত করার পথ খুলে দিয়ে আশার আলো জাগিয়েছিল।
প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, প্রতিবারই মোহন বাগান দিবসে দল সহ ক্রীড়াজগতের বিশিষ্ট ক্রীড়াবিদদের মোহন বাগান রত্ন সম্মানে ভূষিত করা হয়। এবছর এই পুরস্কারপ্রাপকরা হলেন হকি প্লেয়ার গুরুবক্স সিং এবং ক্রিকেটার পলাশ নন্দী। মোহন বাগান তিনবার জাতীয় ফুটবল লিগ জিতেছে এবং এবছর মিলিয়ে দুবার আইলিগ জিতেছে। করোনা মহামারীতে খেলাধুলো বন্ধ হয়ে যাওয়ার আগেই আইলিগ জিতে গিয়েছিল মোহন বাগান।
ছবি:‌ মোহন বাগান টুইটার       

জনপ্রিয়

Back To Top