অক্সিজেনের ঘাটতি নিয়ে অভিযোগ করেছিলেন, সেই হাসপাতাল মালিক গ্রেপ্তার যোগীর রাজ্যে

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ হাসপাতালে অক্সিজেনের সরবরাহ নেই। সেই নিয়ে অভিযোগ করেছিলেন লখনউয়ের এক বেসরকারি হাসপাতালের মালিক। ‘‌গুজব’‌ ছড়ানোর অভিযোগে তাঁকে আটক করেছিল পুলিশ। তাতেও রেহাই নেই। এবার এক সংবাদিককে আটকে রাখা এবং মারধর করার অভিযোগে ওই হাসপাতালের মালিককে গ্রেপ্তার করল উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।
ধৃতের নাম অখিলেশ পাণ্ডে। লখনউতে সান নামে একটি হাসপাতাল রয়েছে। ৩ মে ওই হাসপাতালের বাইরে একটি নোটিস ঝুলিয়েছিল কর্তৃপক্ষ। বলা হয়, অক্সিজেনের জোগান নেই। তাই রোগীদের যেন অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যায় পরিবার। ‘‌গুজব’‌ ছড়ানোর অভিযোগে ৫ মে অখিলেশকে আটক করে পুলিশ। এফআইআর হয়।
এই এফআইআর–এর বিরুদ্ধে এলাহাবাদ হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন অখিলেশ। ১১ মে হাইকোর্ট জানিয়ে দেয়, হাসপাতাল মালিকের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করতে পারবে না পুলিশ। কিন্তু তাতেও রেহাই মেলেনি। অখিলেশের স্ত্রীর প্রীতির অভিযোগ, পুলিশের কাছে মাথা নত করেননি তাঁর স্বামী। প্রতিশোধ চরিতার্থ করতে এসব করছে পুলিশ।
পুলিশের নতুন অভিযোগ, অখিলেশের কাছে বিজ্ঞাপন চাইতে গেছিলেন কয়েক জন সাংবাদিক। তাঁদের এক জনকে আটক করে মারধর করেছেন অখিলেশ পাণ্ডে। যদিও অখিলেশ সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তাঁর আইনজীবী জানিয়েছেন, ওই সাংবাদিক অখিলেশকে মারতে গেলে নিজেকে রক্ষা করেন তিনি। ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ পুলিশকে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সেসব ডিলিট করে দিয়েছে পুলিশ। যদিও এই নিয়ে মুখ খোলেননি লখনউয়ের পুলিশ কমিশনার ডি কে ঠাকুর।