আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ছেলের সঙ্গে প্রায়ই বচসা লেগে থাকত। বাবার মুখে মুখে তর্ক করতেন ছেলে। এসব পছন্দ ছিল না। এক দিন তুমুল ঝামেলা। তার পরই মনস্থির করলেন, সম্পত্তির ভাগ বাটোয়ারা করে দেবেন। নিজের কৃষি জমির দু’‌ একর লিখে দিলেন পোষ্য কুকুরের নামে। ছেলের মাথায় হাত।
ওম নারায়ণ বর্মা পেশায় কৃষক। মধ্যপ্রদেশের ছিন্দওয়াড়া জেলার বারিবাদা গ্রামে বাস। ছেলে প্রায়ই বাবার সঙ্গে ঝগড়া করতেন। জব্দ করতে উইল করলেন বর্মা। পৈতৃক কৃষি জমির অর্ধেক লিখে দিলেন স্ত্রীর নামে। বাকি অর্ধেক দিলেন ১১ মাসের দেশি কুকুর জ্যাকিকে। সেই জমির পরিমাণ নেহাত কম নয়। দু’‌একর।
উইলে এও লিখলেন, যিনি ৫০ বছরের বর্মার মৃত্যুর পর জ্যাকির দায়িত্ব নেবেন, তিনিই জমির মালিক হবেন। উইলকে স্বীকৃতি দিতে হলফনামায় নথিভুক্ত করেন। এসব করে যদিও নিজের ভুল বোঝেন। তখন গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান যমুনা প্রসাদ শর্মা তাঁর সঙ্গে কথা বলেন। বুঝিয়ে সুঝিয়ে উইল পরিবর্তনে রাজি করান। জানা গেছে, শিগগিরই ছেলেকে জমির ভাগ দেবেন বর্মা। 

জনপ্রিয়

Back To Top