আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ যাঁরা রাত জেগে দুর্গম এলাকায় দাঁড়িয়ে বন্দুক তাক করে জীবন কাটান তাঁদের পর্যাপ্ত পরিমাণ প্রয়োজনীয় খাবার এবং প্রবল ঠাণ্ডা মোকাবিলা করার জিনিসপত্রের ঘাটতি রয়েছে। দেশের মানুষ যাতে সুরক্ষিত থাকেন তা সুনিশ্চিত করতে ভারতীয় সেনারা সিয়াচেন অথবা লাদাখের প্রতিকূল পরিস্থিতিতে পড়ে রয়েছেন, তাঁদের জন্যেই নেই প্রয়োজনীয় খাদ্য এবং শীতের প্রকোপ থেকে বাঁচতে যথাযথ ব্যবস্থা। এই তথ্য সামনে নিয়ে এসেছে ভারতের কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটার জেনারেল (‌সিএজি)‌।
সিএজি’‌র রিপোর্ট অনুযায়ী, সিয়াচেন, লাদাখ এবং ডোকা লা–তে যে সব সেনারা রয়েছেন তাঁরা পাচ্ছেন না বিশেষ শীত পোশাক, স্নো গগলস, মাল্টি পারপাজ বুট এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় রসদ। তাঁদের যে পরিমাণ ক্যালরি ইনটেক করা উচিত সেই মতো খাবারও পৌঁছচ্ছে না। ফলে এখানেও নরেন্দ্র মোদির সরকারের প্রতিরক্ষা, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। 
যদিও সিএজি’‌র অভিযোগের জবাবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক সূত্রে খবর, যে অভাবের কথা বলা হয়েছে তা সেনাবাহিনীর হেড কোয়ার্টার মজুত রয়েছে। যাঁরা ওখানে কর্তব্যরত রয়েছেন তাঁদের কোনও অভাব রাখা হয়নি। এক সেনা আধিকারিকের দাবি, সিএজি অডিট করা হয়েছিল ২০১৫–১৬ থেকে ২০১৭–১৮ সালে। তার পর থেকে অনেক উন্নতি হয়েছে। প্রয়োজনীয় পোশাক এবং সরঞ্জামের কোনও অভাব নেই সিয়াচেনের মতো অঞ্চলে। বহু উচ্চতায় যে সব সেনারা থাকেন তাঁদের একজনের পোশাকের খরচ প্রায় ১ লাখ টাকা। এই খরচ আরও খানিকটা কমাতে সেনা দেশি পদ্ধতি এই সব বিশেষ শীত পোশাক তৈরির পরিকল্পনা করছে। এখন পুরোটাই বিদেশ থেকে আমদানি করা হয়।

জনপ্রিয়

Back To Top