আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ উত্তর প্রদেশের সোনভদ্র জেলায় মেলা স্বর্ণভান্ডারে রয়েছে প্রায় ৩০০০ টন সোনা। যা দেশের মজুত সোনার থেকে প্রায় পাঁচ গুণ বেশি। আন্তর্জাতিক বাজারমূল্য প্রায় ১২ লক্ষ কোটি টাকা। শনিবার ঘটনাস্থল ঘুরে দেখে একথা জানিয়েছে জিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া বা জিএসআই–এর ভূতত্ত্ব এবং খনি বিভাগ বা ডিজিএম উত্তর প্রদেশের ডিরেক্টোরেট। ‌জিএসআই–এর ডিজিএম–এর অফিসার কেকে রাই শুক্রবারই বলেছিলেন, জেলার সোনা পাহাড়ি ব্লকে ২৯০০ টন এবং হার্দি অঞ্চলে ৬৪৬.‌১৫ কেজি সোনা আছে বলে প্রাথমিক অনুমান তাঁদের। রাজ্যের অন্যতম দরিদ্র জেলায় এভাবে সোনার ভান্ডার উদ্ধার হওয়ায় স্বভাবতই খুশি উপচে পড়ছে যোগী সরকারের চোখেমুখে। তার প্রমাণ পাওয়া গেল শনিবার উপ মুখ্যমন্ত্রী কেশবপ্রসাদ মৌর্যের কথায়। এদিন ঘটনাস্থলে গিয়ে বলেন, ‘‌রাজ্য সরকার খুব খুশি এই খবরে। এটা ভারতকে অর্থনৈতিকভাবে শক্ত করবে।’ পাহাড়ি অঞ্চলের প্রায় ১০৮ হেক্টরজুড়ে পাওয়া ওই স্বর্ণভান্ডারে খনিজ সোনার জায়গা চিহ্নিত করে শনিবারই লখনউয়ে রিপোর্ট জমা দেবে জিএসআই–এর সাত সদস্যের দল। কেকে রাই আরও জানান, ১৯৯২–৯৩ সাল থেকেই ওই অঞ্চলে সোনার খোঁজে খোঁড়াখুঁড়ি চালাচ্ছিল জিএসআই। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, প্রাচীন ভারতে যে অতুল্য ধনরাশির কথা উল্লেখ রয়েছে ইতিহাসে তারই একাংশ ওই স্বর্ণভান্ডার। প্রসঙ্গত, কয়েক বছর আগেও এক সাধুর স্বপ্নাদেশের জেরে উত্তর প্রদেশেরই অন্যত্র বেশ কিছুদিন ধরে খননকাজ চালিয়েছিল জিএসআই। যদিও তাতে মেলেনি কিছুই।    

জনপ্রিয়
আজকাল ব্লগ

Back To Top