আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ৩৫ ফুট লম্বা তিমি বঙ্গোপসাগরে?‌ ঢেউয়ের সঙ্গে তাজপুর ও জলধার মোহনার তীরে এসে ঠেকল বিশালাকার এক তিমি। কিন্তু তিমির মতো প্রাণী তো ভারত মহাসাগরে জীবনযাপন করতে পারে। বঙ্গোপসাগরের জলের গভীরতায় এমন প্রাণীর চলাচল প্রায় অবিশ্বাস্য। স্থানীয়দেরও চক্ষু চড়কগাছ। এরকম একটি কাণ্ড প্রথমবার ঘটেছে এই এলাকায়। তবে ২০১২ সালে দীঘার মোহনার কাছে প্রায় এরকমই লম্বা একটি তিমি মাছের সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল। কিন্তু প্রশ্ন হল, প্রাণীটি মারা গেল কীভাবে?‌ লেজে ও দেহে আঘাতের চিহ্ন নজরে এসেছে।  
সকালবেলা স্থানীয়দের নজরে পড়ে দূরে সমুদ্রে কিছু একটা ভেসে আসছে। আকারে যে বিশাল, তা তখনই অনুমান করা গিয়েছিল। ধীরে ঢেউয়ের ঠেলায় পাড়ের দিকেই এসেই ঠেকে তার খানিক পরে। দীঘা মেরিন অ্যাকোয়ারিয়াম থেকে জিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার গবেষকের ইতিমধ্যেই সেখানে পৌঁছে গিয়েছেন। তাঁদের অনুমান, এই তিমিটি আসলে ‘‌ব্রাইড্‌স তিমি’। স্ত্রী লিঙ্গ তিমি। এবং এর মৃত্যু হয়েছে প্রায় এক সপ্তাহ আগে। বাকি পরীক্ষানিরীক্ষার জন্য আপাতত ডিএনএ নেওয়া হয়েছে। ২০১২ সালের তিমি মাছের কঙ্কালটি ‌মেরিন অ্যাকোয়ারিয়ামে সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছে। এক্ষেত্রেও তাই হবে কিনা সে নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত এখনও নেয়নি কর্তৃপক্ষ। তবে আপাতত স্থানীয় পুলিশ ও বন দপ্তরের কর্মীরা সেটিকে তুলে সমাধি দেওয়া প্রচেষ্টায় আছেন। আর স্থানীয়রা সকাল থেকে সেখানে প্রায় ‘‌তিমি উৎসবে’ মেতে উঠেছেন। ভিড় জমে গিয়েছে তিমিকে দেখতে। ভিড় সরাতে প্রায় হিমশিম খেতে হচ্ছে স্থানীয় পুলিশকে। ‌ 

জনপ্রিয়

Back To Top