আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সেই ছোটু চা–ওয়ালাকে মনে পড়ে?‌ ২৬/‌১১ মুম্বই হামলার হিরো!‌ জঙ্গিদের চোখরাঙানি অগ্রাহ্য করেই যিনি আহতদের হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছিলেন!‌ কোভিডের জেরে সেই ছোটুরও রুজি বন্ধ। মুম্বইয়ের পাট চুকিয়ে ২৩ বছর পর ফিরে গেলেন বিহারে নিজের গ্রামে। 
২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বর। মুম্বই জুড়ে পর পর হামলা চালায় ১০ জন পাক জঙ্গি। সমুদ্র পথে অনুপ্রবেশ করেছিল আজমল কাসভরা। হামলায় মারা গেছিলেন ১৬৬ জন। ছত্রপতি শিবাজি মহারাজ টার্মিনাসেও হামলা হয় সেই রাতে। সেখানেই চায়ের দোকান ছিল ছোটুর। ঠেলায় চাপিয়ে আহতদের সেন্ট জর্জ হাসপাতালে নিয়ে যান তিনি। তখনও মুম্বই জুড়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে কাসভরা। চলছে গোলাগুলি।
ছোটুর এই কৃতিত্বের জন্য ৭০ হাজার টাকা পুরস্কার দেয় সরকার। সেই ছোটুরই আজ তিন লক্ষ টাকারও বেশি দেনা। কোভিডের জেরে লকডাউনের সময় দোকান বন্ধ ছিল। তার পর খুললেও বিক্রিবাট্টা নেই। প্রথমদিকে ছত্রপতি শিবাজি মহারাজ টার্মিনাসের রেল কর্মীরা সাহায্য করেছিলেন। কিন্তু আর চলছে না। অগত্যা বিহারের মুজফ্‌ফরপুর জেলার দুমরিতে নিজের গ্রামে ফিরেছেন ছোটু। ২৩ বছর পর। 
১৯৯৫ সালে মুম্বই গেছিলেন। তখন তাঁর বয়স ১২ বছর। কয়েক বছর পর নিজের দোকান খুলে ফেলেন। সেই দোকানেই এখন তালা। 

জনপ্রিয়

Back To Top