আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‌ফের আরও ২ জন করোনা আক্রান্তের মৃত্যু রাজ্যে। এই নিয়ে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে করোনায় ৫ জনের মৃত্যু হল। রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৭। গতকাল সন্ধ্যে নাগাদ দু’‌জন করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে রাজ্যে। এনআরএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৬২ বছরের এক প্রৌঢ়ের করোনায় মৃত্যু হয়েছে। আর হাওড়ার গোলাবাড়ি আইএলএস হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত এক ৫৭ বছরের এক প্রৌঢ়ের মৃত্যু হয়েছে। করোনা পজিটিভ, রিপোর্ট আসে রাতে। এনআরএসে যাঁর মৃত্যু হয়েছে তাঁর বাড়ি উল্টোডাঙায়। তাঁর বিদেশ ভ্রমণের কোনও যোগসূত্রে এখনও পাওয়া যায়নি বলে স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে খবর। সোমবার শ্বাসকষ্ট নিয়ে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন।  গতকাল রাত ৯টায় নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট আসে এসএসকেএম থেকে। তার আগেই তাঁর মৃত্যু হয়।

 

 

রাজ্যে করোনা–আক্রান্ত প্রথম তিনজন সুস্থ, হাসপাতাল থেকে ছাড়লেও থাকবেন হোম কোয়ারানটাইনে

গোলাবাড়ির আইএলএস হাসপাতালে যে প্রৌঢ়ের মৃত্যু হয়েছে, তাঁর বাড়ি হাওড়ার মল্লিকফটকে। সোমবার তিনিও প্রবল শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। গতকাল সন্ধেয় মৃত্যু হয়। নাইসেড থেকে রিপোর্ট আসে তার পরে। ওই প্রৌঢ়ের স্ত্রী, পুত্রবধূ, ভাই এবং ভাইপোকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এর পাশাপাশি, রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩৭। শ্রীরামপুরের ওয়ালশ হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন দুই ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। দু’‌জনের বয়স যথাক্রমে ৪৯ ও ৫০।  এসএসকেএমে দু’জনের নমুনা পরীক্ষা হয়। আরজি কর হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন ৫৯ বছরের মহিলার নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তাঁর নমুনা পরীক্ষা করা হয় এসএসকেএম হাসপাতালে। পিয়ারলেস হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন নয়াবাদের বাসিন্দার সংস্পর্শে আসা এগরার এক ব্যক্তিরও নমুনা পজিটিভ। তিনি ভর্তি আছেন এগরার হাসপাতালে।  নয়াবাদের ওই বাসিন্দা এগরার এক বিয়েবাড়ি থেকে ফেরার পরে করোনা আক্রান্ত হন। কম্যান্ড হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত চিকিত্‍সকের পরিবারের তিন সদস্যের নমুনা পরীক্ষাও পজিটিভ এসেছে। ওই তিনজনই ভর্তি রয়েছেন কম্যান্ড হাসপাতালে। পরিবারের সাত জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য নাইসেডে পাঠানো হয়েছিল।
দমদমের নাগেরবাজারে আইএলএস হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন ইতালির মিলান ফেরত এক প্রৌঢ়ার রিপোর্টও পজিটিভ এসেছে। প্রৌঢ়ার নমুনা পরীক্ষা হয় এসএসকেএম–এ। তিনি গত ২০ ফেব্রুয়ারি মিলান থেকে ফিরেছিলেন।  একমাস কোনও শারীরিক অসুস্থতা ছিল না বলে প্রৌঢ়ার দাবি। ২৩ মার্চ আচমকা জ্বর হয়। দেখা দেয় শ্বাসকষ্ট।  গতকাল রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। ওই প্রৌঢ়ার স্বামীও হাসপাতালে ভর্তি। আজ তাঁর নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট আসার কথা।

জনপ্রিয়

Back To Top