আজকাল ওয়েবডেস্ক: প্রথম রিপোর্টে রেয়াত পেয়েছিলেন মা–মেয়ে। কিন্তু দ্বিতীয় রিপোর্টে আর পেলেন না। ঐশ্বর্য এবং আরাধ্যা বচ্চনও কোভিড আক্রান্ত হয়েছেন। তবে জয়ার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। এবার এই খবর নিশ্চিত করলেন খোদ অভিষেক বচ্চন।
রবিবার সকালে মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ টোপে টুইটারে খবরটি প্রথম জানান। তার পরেই ডিলিট করে হয় তাঁর পোস্ট। সেই নিয়ে শুরু হয় জল্পনা। খবর মেলে, দ্বিতীয় রিপোর্টে জয়ার সঙ্গে নেগেটিভ এসেছে ঐশ্বর্য এবং মেয়ে আরাধ্যার। শেষ পর্যন্ত বিষয়টি স্পষ্ট করলেন অভিষেক। 

 

Aishwarya and Aaradhya have also tested COVID-19 positive. They will be self quarantining at home. The BMC has been updated of their situation and are doing the needful.The rest of the family including my Mother have tested negative. Thank you all for your wishes and prayers 🙏🏽


অমিতাভ এবং অভিষেকের কোভিড–১৯ পজিটিভ ধরা পড়ার পর তাঁর পরিবারের বাকি সদস্য এবং কর্মচারীদেরও কোভিড–১৯ পরীক্ষা করা হয়েছিল শনিবার। রবিবার প্রথম রিপোর্টে দেখা যায় জয়া, ঐশ্বর্য এবং আরাধ্যা কোভিড–১৯ নেগেটিভ। কিন্তু দ্বিতীয় রিপোর্টে ঐশ্বর্য এবং আট বছরের আরাধ্যার শরীরে কোভিড–১৯ পজিটিভ ধরা পড়ে। মুম্বইয়ের মেয়র কিশোরী পেডনেকর বলেছেন, শনিবার রাতেই র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন কিট দিয়ে তাঁদের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। তবে রিপোর্ট নেগেটিভ এলেও জয়াকে ১৪ দিন হোম কোয়ারানটাইনে থাকতে হবে। ১৪ দিন পর, কোয়ারানটাইনের কার্যকাল শেষ হলে পর আবার কোভিড পরীক্ষা হবে তাঁদের।
কিশোরী আরও বলেছেন, রবিবার সকালে বৃহন্মুম্বই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন বা বিএমসি অমিতাভের ‘‌জলসা’‌ বাংলো স্যানিটাইজ করে। তারপর বাংলোটি কনটেইনমেন্ট জোন বলে ঘোষণা করে বোর্ড লাগিয়ে পুরোপুরি সিল করে দেওয়া হয়। আপাতত কেউ ওই বাংলো থেকে বেরোতে বা ঢুকতে পারবেন না। শুধু অত্যাব্যশকীয় পণ্য পৌঁছে দেওয়া হবে বাংলোতে। অমিতাভের বিপুল জনপ্রিয়তার কথা মাথায় রেখে বাংলো এবং লাগোয়া এলাকা ব্যারিকেড করে দিয়েছে মুম্বই পুলিশ।
ছবি:‌ এএনআই                  ‌‌‌‌‌            ‌‌‌‌     ‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top